খবরলীড

বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারদের পদে নন ক্যাডারদের পদায়ন বন্ধের দাবি

বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডারের শিডিউলভুক্ত পদে নন বিসিএস (স্বাস্থ্য) কর্মকর্তা পদায়ন বাতিলের দাবি জানিয়েছে বিসিএস হেলথ এসোসিয়েশন। বুধবার তারা এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে চিঠি দিয়েছে।

বিসিএস স্বাস্থ্য ক্যাডার এসোসিয়েশন সভাপতি অধ্যাপক ডা. আ ম সেলিম রেজা স্বাক্ষরিত ওই চিঠির অনুলিপি বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন, জনপ্রশাসনমন্ত্রণালয়ের সচিব ও স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিবকেও দেয়া হয়েছে।

চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, বিভিন্ন সময়ে বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের শিডিউলভুক্ত বিভিন্ন পদ ( যেমনঃ অতিরিক্ত মহাপরিচালক, বিভিন্ন ইন্সটিটিউট প্রধান, মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ, হাসপাতাল পরিচালক, অধিদপ্তরের পরিচালক, বিভাগীয় পরিচালক, সিভিল সার্জন, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা) নন বিসিএস কর্মকর্তাদের পদায়িত করা হচ্ছে যা ‘বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস নিয়োগ বিধিমালা, ১৯৮১’, ‘বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (পদোন্নতির জন্য পরীক্ষা) বিধিমালা, ১৯৮৬’ এবং ‘বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (পদোন্নতির জন্য পরীক্ষা) বিধিমালা, ২০১৭’ পরিপন্থী।

চিঠিতে বলা হয়, এধরনের পদায়নের ফলে একদিকে যেমন বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারের কর্মকর্তাবৃন্দ অধিকার বঞ্চিত হওয়ায় তাদের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি হচ্ছে যা কর্মস্পৃহা নষ্ট করছে অন্যদিকে সরকারের স্বাস্থ্যসেবাও ব্যাপকভাবে বিঘ্নিত হচ্ছে। ক্যাডার পদে নন ক্যাডার পদায়ন অচিরেই বন্ধ করা হোক, চলমান ও প্রক্রিয়াধীন পদায়ন স্থগিতসহ এবং পূর্বের পদায়ন বাতিল করে ক্যাডার কর্মকর্তা পদায়ন করতে হবে।

প্রসঙ্গত, সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউটের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। তার এ নিয়োগ নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরসহ স্বাস্থ্য বিভাগে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে।

সংশ্লিষ্টরা কর্মকর্তারা জানান, সরকারি সব ধরনের নিয়ম-নীতি উপেক্ষা করে তাকে এই পদে পদায়ন করা হয়েছে। তারা বলেন, দি বিসিএস রিক্রুটমেন্ট রুলস ১৯৮১ এবং দি বিসিএস এক্সমিনেশন ফর প্রমোশন রুলস ১৯৮৬, এজ এমেনমেন্ড আপটু আগস্ট ১৯৯৯ অনুযায়ী কাউকে অতিরিক্ত মহাপরিচালক হতে হলে তাকে অবশ্যই কমপক্ষে ১৮ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। এছাড়া অর্থ ও হিসাব শাখার পরিচালক, চিকিৎসা শিক্ষা জনশক্তি উন্নয়ন, প্রাইমারি হেলথ কেয়ার, রোগ নিয়ন্ত্রণ, কেন্দ্রীয় ঔষধাগার, আইপিএইচএন, আইপিএইচ, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল- এ প্রতিষ্ঠানগুলো যেকোনো একটির পরিচালক হিসেবে কমপক্ষে দুই বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। এছাড়া মেডিকেল কলেজ, নিপসম, এনআইসিভিডি, আরআইএইচডি, এনআইও, আইডিসিএইচ অথবা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ বা অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। অথবা নিপসমের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, অতিরিক্ত পরিচালক হিসাবে নিপসম দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। কিন্তু এর কোনটির অভিজ্ঞতা তার ছিল না।

অধিদফতরের সিনিয়র ও জুনিয়র একাধিক কর্মকর্তা যুগান্তরকে বলেন, একজন কর্মকর্তা যিনি বিসিএস ক্যাডার অফিসার নন, একজন নন-ক্যাডার অফিসার হিসাবে কীভাবে অতিরিক্ত মহাপরিচালক হন? দি বিসিএস রিক্রুটমেন্ট রুলস ১৯৮১ অনুযায়ী যা সম্পূর্ণ অবৈধ।