গুণীলীড

ভাইয়াকে নিয়ে একটুও বাড়িয়ে বলছিনা

ডা. মিথিলা ফেরদৌস :

ভাইয়ার সাথে কবে যে পরিচয় হয়েছিল মনে নাই। তবে, কুমিল্লা বার্ডে সন্ধানী আই সোসাইটির তিনদিনের একটা ওয়ার্কশপ ছিলো, সেখানে ভাইয়া, কাকে জানি দেখিয়ে জিজ্ঞেস করেছিলেন, “এই পিচ্চিটা কে রে?” আমি তখন ফোর্থ ইয়ার বা ফিফথ ইয়ারে।

এরপর টুটুল ভাইয়াকে ভোলার মত তো কোনও কারণই থাকতেই পারেনা। একজন মানুষ কেমন করে এত পরিপূর্ণ মানুষ হতে পারেন, আমার কাছে এইটা বিস্ময়! একজন মানুষ কেমন করে সবার এত প্রিয় হতে পারেন কল্পনাতীত! তার কিছু কিছু কারণ আমার নিজের দেখা।

পরিচিতদের কেউ কোথাও বিপদে পরেছে। সবার আগে ভাইয়ার মন খারাপ! কিছুদিন আগে ডাঃ মনোয়ার করোনায় মারা গেলো, আমাদের সবার জন্যেই কষ্টের সংবাদ! ভাইয়া যেনো আপন জন হারিয়েছেন, গ্রুপে বার বার মন খারাপ করে বলছিলেন। কারো উপর অন্যায় হচ্ছে, ভাইয়ার ধারালো লিখনী। কেউ অসুস্থ ভাইয়ার মন খারাপ। “কি করা যায় বুনডি?”

কখনওই ভাইয়াকে কারো নামে কটু কথা বলতে শুনিনি।

আমার কোনও দরকার! ভাইয়াকে ফোন করি, ভাইয়া আমাকে হেল্প করতে হবে, ডিজিতে যেতেই হবে। “অবশ্যই যাবো বুনডি।” “ভাইয়া, আমার চোখে সমস্যা!” “চেম্বারে চলে আয় বুনডি।” ভাইয়া আর আপু দুইজনেই বিখ্যাত অপথ্যালমোলজিস্ট। বিজি প্রাকটিশনার! ওনাদের চেম্বারে বিশাল সিরিয়াল ব্রেক করে যেতেও নিজের কাছে খারাপ লাগে।

ভাইয়া, যদি কোনও প্লান করে তার মধ্যে যদি তিনজনকে এড করে তাহলে আমি অবশ্যই তাতে থাকবোই। এতটা সম্মান পাওয়া যোগ্যতা আমার নাই, তবুও ভাইয়া তার বুন্ডীর স্নেহের ব্যাপারে একটুও কার্পণ্য করেন না।

আমি যাকে ভাইয়া ভাইয়া করছি, তাকে ভাইয়া বলাটাও আমার দুঃসাহসের মধ্যে পরে। উনি, একদিন বঙ্গবন্ধুর ভিসি হবেন, এইটা আমার দৃঢ় বিশ্বাস। তারপরেও ওনাকে আমি ভাইয়াই ডাকবো, এইটা আমি অন্য কারো ক্ষেত্রেই করিনা। কিন্তু টুটুল ভাইয়াকে আমি স্যার ডাকতে পারবোনা কখনওই।

খালাম্মা মানে “ভাইয়ার মা” একজন রত্ন গর্ভা। খালাম্মার সব সন্তান বাংলাদেশ সরকারের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা। মিনিমাম অহংকার করতে দেখিনি ভাইয়াকে কখনও। ইনফ্যাক্ট, এই কথাটা ভাইয়া কখনও আমাকে বলেন নাই। আমি নিজেই জেনেছি।

একজন অতি অসাধারণ মানুষের সাধারণ জীবনে চলা, ভাইয়া ওনার লেখনীর মতই অসাধারণ। একটুও বাড়িয়ে বলছিনা ভাইয়াকে নিয়ে। আজ এই প্রিয় মানুষটির জন্মদিন। ভাইয়ার জন্যে দোয়া নিজের স্বার্থেই দোয়া করি। কিছু মানুষ অনেক উপরে উঠলেও, অহংকার তাকে স্পর্শ করতে পারেনা। একদিন পুরা দেশ আমার ভাইকে চিনবে, আমিই উলটা অহংকার করে বলবো, উনি কিন্তু আমার ভাই, আমি উনার ছোট্ট বুনডি।

অনেক দোয়া শুভকামনা ভাইয়া।